Friend, I will come back Bangladesh

with No Comments

The Ukrainian pilot have returned to his country. He have chatted with Nasar, the volunteer engineer, before he left Bangladesh. The only rescued pilot of An-26 plane crashes off Bangladesh coast was under treatment for a month. After improvement of his health he is going to see his relatives.

 

সেই বিমানের পাইলট উড়াল দিল ইউক্রেন,বন্ধু ,আই কাম ব্যাক বাংলাদেশ

কক্সবাজারের দুর্ঘটনায় বেচে যাওয়া পাইলট কিছুটা সুস্থ হয়ে উড়াল দিল নিজ দেশ ইউক্রেনে ।স্বজনরা তাকিয়ে আছে পাইলট বালদিমার কুন্তুনুব এর দিকে।কখন প্রিয় মানুষটি তাদের কাছে ফিরে ।কুলতুনুব ফোনে বলে বন্ধু,দেশে গিয়ে কথা হবে,আবার ফিরে আসব বাংলাদেশে ।

blu

২ হাত লোহার শিকলে বাঁধা অজ্ঞাত এই রুগীটির

with No Comments

 

দু হাত লোহার শিকল দিয়ে বাঁধা ।সাথে ২ টি তালাও দেখা গিয়েছে ।মুখে এবং মাথায় আঘাত ।কে বা কারা পটিয়া থেকে এনেছে তাকে ।আজ ৫.০৪.২০১৬ তারিখ দুপুর ১২.০০ ঘটিকায় হাসপাতালের ২৮ নং ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়।পরনে নীল রঙের শার্ট এবং জিন্স এর পেন্ট ।নাক আঘাতে ফেটে গিয়েছে ।এখন পর্যন্ত তার স্বজনের খোঁজ পাওয়া যায়নি । তার চেহারা পুরোপুরি বুঝা যাচ্ছে না।কারন তার মুখমণ্ডল আঘাতে ফুলে গিয়েছে।কিন্তু আমি অবাক হচ্ছি তার হাত লোহার শিকলে বাঁধা কেন?

অজ্ঞাত লোকটির খোঁজ এখনো মিলেনি

with No Comments

গতকাল ৪.০৪.২০১৬ তারিখ,সময় রাত ০৯.৩০ ,সীতাকুণ্ড থানাধিন ফউজদারহাঁট থেকে অজ্ঞাত অবস্থায় এক যুবককে আনা হয়েছে ।তাকে ২৮ নং ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয় ।তার বয়স আনুমানিক ৩৫ বছর ।এখন পর্যন্ত তার পরিচয়ই মিলেনি । পরনে নিল রঙ্গের পেন্ট,শরীরে কোন কাপড় ছিল না ।মাথায় গুরুত্বর আঘাত ।জ্ঞান এখনও ফিরেনি । শরীরে সিমেন্ট লাগানো ।মনে হচ্ছে সিমেন্ট এর কুলি বা দিন মজুর। সকলে তার জন্য দোয়া করবেন ।যাতে তারা তারি যুবকটির জ্ঞান ফিরে পায় ।

আমি বাড়ী যেতে চাই,আমাকে বাড়ীতে নিয়ে যান ,দীর্ঘ ১ মাস পর অবশেষে নাম ঠিকানা বলতে পারলো অজ্ঞাত মেয়েটি

with No Comments

…………………

দীর্ঘ ১ মাস পর কথা বলতে লাগলো মেয়েটি ।সে এখন আল্লাহ্‌র রহমতে সুস্থ।এখন কথা বলে ,প্রশ্নের সাথে সাথে উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করছে মেয়েটি। নামঃফরিদা,পিতাঃখোকন,মাতাঃরাবেয়া খাতুন।বাড়ীঃওসমানপুর,বাঙ্গালি পাড়া,অষ্টগ্রাম,কিশোরগঞ্জ।২ ভাই ২ বোন। ছোট বোনের নাম মৌসুমি,বোনের মধ্য ফরিদাই বড় .২ ভাই এর মধ্য বড় ভাইয়ের নাম মখলেসুর রহমান ।ছোট ভাইয়ের নাম সাকিল । চিটাগাং কিভাবে এসেছ এই প্রশ্ন করা হলে সঠিক উত্তর দিতে পারেনি ফরিদা ।এখন শুধু বাড়ি পৌঁছার অপেক্ষায় প্রহর গুনছে ।

প্রসঙ্গতঃ এই মেয়েটি গত ১০.০৩.২০১৬ তারিখ ,বয়স আনুমানিক ২০ বছর ।সে এখন ওয়ার্ডের বারান্দায় আছে ।মাথায় এবং মুখে গুরুতর আঘাত নিয়ে ২৮ নং ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয় ।অনেক দিন অচেতন অবস্থায় ছিল ফরিদা।
অজ্ঞান অবস্থায় এবং সুস্থ অবস্থার মুহূর্তের ছবি

অজ্ঞাত মেয়েটির অবস্থা অনেকটা উন্নতির পথে…………

with No Comments

ফলোআপ

অজ্ঞাত মেয়েটির শারীরিক অবস্থা অনেকটা ভাল ।।চোখ মেলত না।কিন্তু এখন চোখ মেলেছে ।খাবার খেতে পারে স্বাভাবিক ভাবে ।তার ঠোঁটে ৩ টি সেলাই দেওয়া হয়েছে ।তাও এখন অনেকটা শুকিয়ে এসেছে । এই মেয়েটির বয়স আনুমানিক ২০ বছর । ১০.০৩.২০১৬ তারিখ ,২৮ নং ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয় ।সে এখন ওয়ার্ডের বারান্দায় আছে ।

বাচ্চাটির জন্য সকলে দোয়া করবেন,মানসিক আক্রান্ত অজ্ঞাত মহিলাটির কন্যা সন্তানের অবস্থা সঙ্কতাপন্ন,

with No Comments

বাবুটির অবস্থা তেমন ভাল না ।একমাত্র আল্লাহর উপর ভরসা ।তাছারা আর কিছু করার নেই ।বাচ্চা টিকে নিবিড় পরিচর্যা ইউনিট এ রাখা হয়েছে ।তাই সচরাচর ঐ ওয়ার্ডে যাওয়া যায় না ।কিন্তু দুর থেকে দেখা যায় তাও একটি স্বচ্ছ কাঁচের দেয়ালের মাদ্দমে ।আর মায়ের কথা বলে তো শেষ হবেনা ।মানসিক আক্রান্ত হওয়ায় সে নিজেই বলতে পারে না যে সে মা হয়েছে ।তার মাঝে সেই অনুভুতি টুকু খুজে পাওয়াই জায় না ।

মানসিক আক্রান্ত অজ্ঞাত মহিলাটি গত রাতে কন্যা সন্তান প্রসব করেছে

with No Comments

babu

১৫.০৩.২০১৬তারিখ অজ্ঞাত এক মহিলা ১৩ নং ওয়ার্ডে ভর্তি করানো হয় ।শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে একজন কলেজ পড়ুয়া মেয়ে রাস্তায় এই পাগল মহিলাটিকে হাসপাতালে এনে তাকে ভর্তি করায়। রাতেই তার কোল (নরমালে) জুড়ে আসে কন্যা সন্তান ।মা মানসিক ভাবে আক্রান্ত হওয়াতে সঠিক ভাবে ওষুধ খাওয়ানো যাচ্ছে না ।বাহির থেকে ওষুধ কিনে এনেছি ।কিন্তু খাওয়াতে অনেক কষ্ট হচ্ছে । আর মেয়ের শারীরিক অবস্থা তেমন ভাল নেই ।উপযুক্ত সময় হওয়ার আগেই এই বাচ্চা জন্ম হায় ।তাই তাকে নিবিড় ভাবে দেখা সুনা করা হচ্ছে ৩২ এ ওয়ার্ডে ।মা আর মেয়ে ২ জন ২ জায়গায় হওয়াতে দেখা সুনা করতে কষ্টই হয়ে যাচ্ছে ।
সকলে এই মানসিক আক্রান্ত অজ্ঞাত (মা ) এবং মেয়ের জন্য দোয়া করবেন ।২ জনকেই যেন আল্লাহ সুস্থ রাখে ।
(যেই মেয়ে এই পাগল মহিলাটিকে রাস্তা থেকে তুলে এনে হাসপাতালে ভর্তি করেছে তার প্রতি আমার লাখ লাখ স্রদ্ধা ,সালাম ,ভালবাসা রইল

এই অজ্ঞাত মেয়েটি হাস্পাতালেই পড়ে আছে ।

with No Comments

 

১০.০৩.২০১৬ তারিখ ,২৮ নং ওয়ার্ডে ,বিছানা নং (81a)।তাকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয় । লিকলিকে শরীরটা ।দেখে মনে হয় রাস্তায় ই তার বসবাস।বয়স আনুমানিক ২০ বছর ।ঠোটে সেলাই করা ।কে বা কারা তাকে হাসপাতালে ভর্তি করায় ।ভর্তি হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত তার জ্ঞান ফিরেনি ।তার চিকিৎসা চলছে । শুধু জ্ঞান ফিরার অপেক্ষায় আছি ।সকলে মেয়েটির জন্য দোয়া করবেন ।

বয়স্ক এই অজ্ঞাত মহিলাটি হাসপাতালের বিছানায় পড়ে আছে……………।

with No Comments

টুনটুনে বুড়ি ।০৮.০৩.২০১৬ তারিখ ২৮ নং ওয়ার্ডের বারান্দায় ভর্তি করানো হয় ।সাগরিকা রোড থেকে কে বা কারা তুলে এনে হাসপাতালে ভর্তি করায় ।মুখে দাঁত নেই বললেই চলে ।চোখ পাকিয়ে চায় সকলের দিকে ।কিন্তু কথা বলেনা ।পা এবং মাথায় আঘাত ।মাথায় সেলাই করা হয়েছে তার ।তরল জাতীয় খাবার পছন্দ করে এই বয়স্ক মা ।

1 2 3 4