অবশেষে পরিচয় পাওয়া গেল এই লোকটির।।……………..

with No Comments

 

অবহেলার শেষ নেই।27.10.2016 তারিখ চিটাগাং মেডিকেল কলেজ এ ২৮ নং ওয়ার্ডের ফ্লোরে পরে থাকতে দেখি। শরীরে দুর্গন্ধjokir1,সারা শরীরে পস্রাব আর মল লেগে আছে।তার পাশে চিকিৎসা নিতে আশা রুগীরা আরও যেন অসুস্থবোধ করছে।কেও তার পাশে উকি দিয়ে দেখতে রাজি না।ডাঃ আর নার্স তো অনেক দূরের কথা।মনে হল এই পৃথিবীতে বাবা মা ছাড়া আসেছে।ওয়ার্ড এ তাকে কেও মানুষ মনে করতে রাজিনা।সে যে একজন রক্ত,মাংসে গড়া মানুষ অনেক এ তা ভুলে গেছে।কিন্তু অন্য রুগীর লক,একজন মহিলা তার দিকে লক্ষ রেখেছে ।ওয়ার্ড ক্লিনার তো টাকা ছাড়া এক কদম লড়তে রাজিনা।তাকে সম্পূর্ণ পরিস্কার করে চিকিৎসা সুরু করা হল।
অবশেষে পাঁচ দিন পর সম্পূর্ণ জ্ঞান ফিরল।জানা গেল তার নাম:জাকির আহমেদ,পিতাঃআলি আহমেদ,মাতাঃনুর আয়েশা, বাড়ি টেকনাফ ,গ্রামঃমনিলা,নইয়া পারা।আর কষ্টের কথা সময়ই এর কারনে তুলে ধরা গেলনা।কিন্তু এত টুকু বলা যাই এই অসহাই মানুষটি মিত্তুর মুখ থেকে আল্লাহ ফিরিয়ে আনেছে।যে ভাবে হাসপাতাল এ অবহেলাই ফেলে রাখা হয়েছিল এতে তার মিত্তু ছিল অনেক সন্নিকতে।সবাই মানুষটির জন্য দোয়া করবেন।
অবহেলাই নিচে পড়ে থাকা অবস্থার ছবি এবং সুস্থ হাওয়ার পরের ছবি

Leave a Reply